ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন কি? এবং ওয়ার্ডপ্রেস এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্লাগিন

ওয়ার্ডপ্রেস কি?

ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি সিএমএস (CMS) বা কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। বিস্তারিত ভাবে বললে ওয়ার্ডপ্রেস হল পিএইচপি ও মাইএসকিউএল ভিত্তিক একটি বিশেষ অনলাইন টুল যার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরণের ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। ওয়ার্ডপ্রেস ফ্রি এবং ওপেনসোর্স ব্লগিং টুল।

প্লাগিন কি?

প্লাগিন হচ্ছে এক ধরনের এপ্লিকেশন বা টুলস যা ব্যবহার করে ওয়েবসাইটে নতুন নতুন ফাংশন এবং ফিচার যুক্ত করা যায়। প্লাগিন আপনার মোবাইলে ব্যাবহৃত এপ্লিকেশনগুলোর মতোই কাজ করে। বর্তমান সময়ে ওয়ার্ডপ্রেসের ব্যাপক এই জনপ্রিয়তার জন্য প্লাগিন এর অবদানই সবচেয়ে বেশি।

ওয়ার্ডপ্রেস এর কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্লাগিন:

  • VaultPress: ওয়ার্ডপ্রেস ধারা তৈরিকৃত ওয়েবসাইট ব্যাকআপের জন্য এই প্লাগিন ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
  • Jetpack: জেটপ্যাক হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন সমষ্টি। অনেকগুলি প্লাগিনের সমন্বয়ে এই প্লাগিন তৈরী করা হয়েছে।
  • Akismet: এটি মূলত সিকিউরিটি প্লাগিন। ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটকে স্প্যাম মুক্ত রাখাই এটির কাজ।
  • Plinky: প্রশ্নোত্তর দেওয়ার জন্য এই প্লাগিন ব্যবহার করা হয়।
  • After the Deadline: কন্টেন্টের বানান ও ব্যাকরণ পরীক্ষা করার জন্য এই প্লাগিন ব্যবহার করা হয়।
  • VideoPress: ভিডিও আপলোড করার জন্য এই প্লাগিন ব্যবহার করা হয়।

আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য কিংবা ব্যাক্তিগত ব্লগ সাইট তৈরী করতে এখনই যোগাযোগ করুন:- www.nurtech.co

আপনার ব্যাবহৃত ওয়েবসাইটের সিকিউরিটি সম্পর্কিত যে কোনো প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন:- 01782-576576

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের পারফরমেন্স ও নিরাপত্তা বৃদ্ধির সহজ কিছু উপায়

একটি ওয়েবসাইটে প্রতিদিন অসংখ্য বার হ্যাকিং এটেম্পট হয়ে থাকে এই ব্যাপারে কম বেশি সকলেই অবহিত যারা ওয়েবসাইট ব্যবহার করে। যদিও ওয়ার্ডপ্রেস প্লাটফর্ম সিকিউরিটির ব্যাপারে অনেক বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে এবং সিকিউরিটি আপডেট প্রতিনিয়ত করতে থাকে। তারপরও আপনার ওয়েবসাইটকে নিরাপদ রাখার জন্য আপনাকে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে। না হলে আপনার সাইটকে নিরাপদ রাখা কষ্টসাধ্য হয়ে যাবে। আজ আমরা আলোচনা করবো প্রাথমিক পর্যায়ে কিভাবে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটকে নিরাপদ রাখা যাই এই প্রসঙ্গে।

সিকিউরিটি প্লাগইন : আপনার ওয়েবসাইট চালু করার সাথে সাথেই ইন্সটল করে নিন একটি ওয়ার্ডপ্রেস সিকিউরিটি প্লাগইন। তবে এই ক্ষেত্রে মনে রাখবেন সব সিকিউরিটি প্লাগইন কিন্তু সাইটের জন্য ভাল নাও হতে পারে। আমরা আপনাকে সাজেস্ট করবো (www.wordfence.com) এই প্লাগইন টির ফ্রী এবং প্রিমিয়াম দুটা ভার্সনই আছে। এই ব্যাপারে যে কোন প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন (www.nurtech.co)

আপনার কম্পিউটার ভাইরাস মুক্ত রাখুন: আপনার ওয়েবসাইটকে নিরাপদ রাখতে সবার আগে আপনার ব্যাবহৃত কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপকে ভাইরাস থেকে নিরাপদে রাখুন। কেননা আপনার কম্পিউটারে ভাইরাস এটাক হলে সেটা সহজেই আপনার সাইটে ছড়িয়ে যেতে পারে।

ভালো হোস্টিং কোম্পানি ব্যবহার করুন: আপনার সাইটের পারফরমেন্স কেমন সেটা অনেকখানি নির্ভর করে হোস্টিং কোম্পানির উপর। হোস্টিং ভাল হলে সাইটের রেগুলার ব্যাকআপ, ভালো স্পীড, নিরাপত্তা ইত্যাদি ব্যাপারে কিছুটা নিশ্চিন্ত থাকা যায়। এর জন্য খরজ একটু বেশি হলেও সবসময় ভাল কোম্পানি থেকে হোস্টিং কেনা ভাল। ভাল মানের হোস্টিং এর জন্য ভিজিট করুন (www.nurtech.co).

Two-factor Authentication: সাইটের নিরাপত্তার জন্য এটি একটি অসাধারণ ফিচার। শুধুমাত্র এই একটি ফিচার ব্যবহারের জন্য আপনার সাইটের নিরাপত্তা কয়েকগুন বেড়ে যাবে।

স্ট্রং লগইন ইনফর্মেশন ব্যবহার করুন: এই প্রসঙ্গে একটি প্রচলিত কথা রয়েছে আর কথাটি হলো, লগইন ইনফর্মেশন যত স্ট্রং হবে, আপনার সাইট হ্যাক করা ততো কঠিন হবে। লগইন ইনফর্মেশন বলতে আপনার সাইটের লগইন Username এবং Password. কোনো সময় অনুমান করা যেতে পারে এই জাতীয় Username এবং Password ব্যবহার করবেন না।

উপরের উলেখিত বিষয়গুলি মেনে চললে আশা করি আপনার সাইটের পারফরমেন্স এবং নিরাপত্তা কয়েকগুন বৃদ্ধি পাবে। এর পরও যদি সাইটের নিরাপত্তা জনিত কোন প্রকার সমস্যার সমুক্ষিন হতে হয় আপনাকে তাহলে দেরি না করে এখনই যোগাযোগ করুন (www.nurtech.co).