৭৮৬ কি আসলেই বিসমিল্লাহির বিকল্প?

বর্তমান সময়ে অনেকেই ‘বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম’ লেখার পরিবর্তে ‘৭৮৬’ লিখে থাকে। উদাহরণ দিয়ে বলা যায় “বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম”-এর ‘বা’, ‘আলিফ’, ‘সিন’ এ বর্ণমালাগুলোর মান বসিয়ে তারা বের করেছেন ৭৮৬।

অনেক মানুষেরই ধারণা রয়েছে যে, ‘৭৮৬’ এই সংখ্যা লিখলে বা মুখে উচ্চারণ করলে ‘বিসমিল্লাহ’ বলা বা লেখার সমপরিমাণ সওয়াব পাওয়া যায়। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। বলাবাহুল্য যে, একটি ‘সুন্নতে মুতাওয়ারাছা’ যা সর্বযুগের ওলামা-মাশায়েখ ও দ্বীনদার ব্যক্তিদের মধ্যে অনুসৃত ছিল তা বাদ দিয়ে শুধু আবজাদী অংক লেখা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না।

আপনি জানেন কি কোন আমলগুলো সদকায়ে জারিয়া?

সদকায়ে জারিয়া মূলত একটি আরবি শব্দ। আরবিতে সাদকা শব্দের অর্থ দান এবং জারিয়া অর্থ প্রবাহমান। মোটকথা সাদকায়ে জারিয়া হলো এমন এক ধরণের দান যার কার্যকারিতা কখনো শেষ হবে না এবং এটা কিয়ামত পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। বিধায় প্রত্যেক মুসলমানের উচিত সদকায়ে জারিয়ার আমলের সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখা। তবে দান কাউকে দেখানোর উদ্দেশ্যে নয় বরং শুধুমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের নিয়তে করতে হবে।

সদকায়ে জারিয়া সম্পর্কে নবী করিম সাঃ এরশাদ করেন:-
اِذَا مَاتَ الاِنْسَانُ اِنْقَطَعَ عَنْهُ عَمَلَهُ اِلَّا مِنْ ثَلَاثَةٍ صَدَقَةٍ جَارِيَةٍ اَوْعِلْمٍ يُنْفَعُ بِهِ اَوْوَلَدٍ صَالِحٍ يَدْعُوْلَهُ- (رواه مسلم)

অর্থ: ‘যখন আদম সন্তান মারা যায় তখন তার সকল আমল বন্ধ হয়ে যায়, তবে তিনটি বিষয় ব্যতীত। ১. সদকায়ে জারিয়াহ্, ২. এমন ইলম বা জ্ঞান যা দ্বারা মানব জাতি উপকৃত হয়, ৩. এমন সুসন্তান যে তার জন্য দো‘আ করে। (মুসলিম শরীফ)

জেনে নিন কোন আমল গুলো সদকায়ে জারিয়া অন্তর্ভুক্ত:

১। রক্ত দান করার মাধ্যমে।
২। এতিমের লালন-পালনের দায়িত্ব নেওয়া।
৩। মসজিদ নির্মাণ কিংবা মসজিদের প্রয়োজনীয় আসবারের ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখা।
৪। প্রয়োজনীয় এলাকায় পানীয় জলের ব্যবস্থা করে দেওয়া।
৫। কোরআন শিক্ষা দেওয়া বা কোরআন শিক্ষা ব্যবস্থাপ করে দেওয়া।
৬। অসহায়-দুঃস্থ মানুষের চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থায় হাসপাতাল নির্মাণ কিংবা চিকিৎসা সামগ্রীর ব্যবস্থা করে দেওয়া।
৭। কবরস্থানের জন্য জমি দান করা কিংবা জমি ক্রয়ে আর্থিক সহায়তা করা। মৃতদের সৎকারের খরচ জোগানো কিংবা বহনের জন্য এ্যাম্বুলেন্স ক্রয়ে সাহায্য করা।
৮। মুসলমানদের কল্যাণে আসে এমন ইসলামি বই-তাফসির, হাদিস, ফিকাহ শাস্ত্রের বই-পুস্তক মুদ্রণ কিংবা বিতরণে সহায়তা করা।
৯। অত্যাচারিত মুসলমান সম্প্রদায়ের পাশে দাঁড়ানো।